চাঁচলে খেলার মাঠে মদের আসর, ক্ষুদ্ধ স্থানীয় সহ শিক্ষক-শিক্ষিকারা - NATUN GATI

Tuesday, June 2, 2020

Contact Us

চাঁচলে খেলার মাঠে মদের আসর, ক্ষুদ্ধ স্থানীয় সহ শিক্ষক-শিক্ষিকারা

চাঁচলে খেলার মাঠে মদের আসর, ক্ষুদ্ধ স্থানীয় সহ শিক্ষক-শিক্ষিকারা

উজির আলী, নতুন গতি, চাঁচল:
পরিকাঠামোর অভাবে ধুঁকছে খেলার মাঠ। তারই ফাঁকে অন্ধকারের সুযোগ নিয়ে রাতের আঁধারে বসছে মদের আসর সহ অন‍্যান‍্য নেশাগ্রস্তকারীরা বলে স্থানীয় বাসিন্দাদের অভিযোগ। সাথে নানান অসামাজিক কুকাজ ঘটেই চলেছে খেলার মাঠে বলে দাবী স্থানীয়দের।
মালদহের চাঁচলের কলিগ্রাম হাইস্কুল মাঠ পরিকাঠামোর অভাবে মদ‍্যপায়ীদের আশ্রয়স্থান হওয়ায় ক্ষোভ খেলোয়ার,পড়ুয়া সহ শিক্ষক শিক্ষিকাদের।।

স্থানীয় বাসিন্দা নুরআলম জানান, সন্ধে হলেই মাঠ প্রান্তে বসছে মদের আসর। মাঠের মধ‍্যে পড়ে থাকছে বতলের ভাঙা কাচ। এছাড়াও মাঠের চারিদিকে নেশাগ্রস্ত প‍্যাকেড সহ বিভিন্ন অপদার্থ জিনিস পড়ে থাকছে।
খেলা সময় বতলের কাচ পায়ে লেগে জখম হতে হচ্ছে খেলোয়াদের বলে অভিযোগ।

উল্লেখ্য, মাঠটি কলিগ্রাম হাইস্কুলের হলেও ব‍্যবহার করে গোটা এলাকা। স্থানীয় প্রাথমিক ও হাইস্কুলের বার্ষিক ক্রীড়া সহ নানান মিটিং সভা হয়ে থাকে এই মাঠে।
এমনি এককালীন রাজ‍্যের প্রয়াত প্রাক্তন মুখ‍্যমন্ত্রী জ‍্যোতি বসু ও দেশের প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি প্রনব মখার্জীও পা রেখেছেন কলিগ্রাম স্কুল মাঠে। এই ঐতিহাসিক মাঠটি আজ পরিকাঠামোর অভাব চরম দুর্দশগ্রস্তের শিকারে ক্ষোভ করছেন স্থানী সহ ক্রীড়া প্রেমিক ও বিশিষ্টরা

মাঠের পাশেই রয়েছে কলিগ্রাম গার্লস হাইস্কুল।
খেলার মাঠে মদের আসর হওয়ায় মদ‍্যপায়ীরা স্কুলের প্রাচীর লাফিয়ে স্কুলে প্রবেশ করছে, এমনকি ফুলের টব ভেঙে ফেলছে বলে অনুমান ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষিকা মানসী দাসের। বিষয়টি তিনি পুলিশকেও জানিয়েছেন । যদিও রাতে মাঠটিতে পুলিশ রেট মারছে, অধরা মদ‍্যপায়ীরা। পকড়াও হলেও কঠোরতম ব‍্যবস্থা নেওয়া হবে বলে পুলিশ সূত্রের খবর।

মাঠের পাশেই কয়েকটি পরিবারের বসবাস। সন্ধ্যায়বেলা মদ‍্যপায়ীদের ভয়ে মেয়েরা আতঙ্কে থাকে বলে অভিযোগ।

কলিগ্রাম হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষক দীপঙ্কর রায় নিজেও মাঠটি পরিদর্শন করেছেন। অপ্রীতিকর কাচের বতল দেখে তিনি ক্ষুদ্ধ।
সম্প্রীতি কয়েকমাস হল বিদ‍্যালয়ে প্রধান শিক্ষক পদে নিযুক্ত হন তিনি মাঠটিতে চতুরপ্রান্তে বেড়া দিতে ঘেরাও করাও আবেদন করেছেন ব্লক প্রশাসনের কাছে। চারমাস হল তবুও কোনো সাড়া পাওয়া যায়নি জানান তিনি।
এদিকে খোলা মাঠে গবাদি পশু চড়ছে ফলে নোঙরা আবর্জনায় পরিপূর্ন হওয়ায় বেহাল হচ্ছে মাঠটি।
পঞ্চায়েতের তরফে হাইমাস বাতি লাগানোর উদ‍্যোগী হবে বলে জানিয়েছেন কলিগ্রাম গ্রাম পঞ্চায়েত প্রধান রেজাউল খান।

মাঠটিতে বেড়া দিয়ে ঘেরাও করার ব‍্যবস্থা নিতে উদ‍্যোগী হবে ব্লক প্রশাসন বলে খবর।

Facebook Comments
error: Content is protected !!