ফেসবুকের কল্যাণে মানসিক ভারসাম্যহীন নিখোঁজ পৌঢ়কে খুঁজে পেল সন্তানেরা - NATUN GATI

Saturday, June 6, 2020

Contact Us

ফেসবুকের কল্যাণে মানসিক ভারসাম্যহীন নিখোঁজ পৌঢ়কে খুঁজে পেল সন্তানেরা

 

হরিশ্চন্দ্রপুর,১৬ এপ্রিল,মহ: নাজিম আক্তার : লকডাউনের জেরে কর্মহীন। বাড়িতে শুরু হয়েছে অভাব অনটন। পরিবারের মুখে দুমুঠো অন্ন জোগানোর উদ্দেশ্যে কাজের সন্ধানে বেরিয়ে ছিলেন মালদা জেলার মানিকচক ব্লকের ধরম পুরের মমিনতোলা গ্রামের বাসিন্দা সেখ মাজেদ(৬০)। তারপর থেকে নিখোঁজ। বাড়ি যাওয়ার পথ ভুলে হরিশ্চন্দ্রপুর এলাকায় পাগলের মতো ঘুরতে থাকে বলে জানা যায়। বুধবার সন্ধ্যা সাড়ে ছ’টা নাগাদ হরিশ্চন্দ্রপুর রেলওয়ে স্টেশন সংলগ্ন এলাকার স্থানীয় লোকেরা তার পরিচয় জানতে চাইলে সে নিখোঁজ হয়ে যাওয়ার কথা জানায়।

হরিশ্চন্দ্রপুর এলাকার এক স্থানীয় বাসিন্দা জিয়াউর রহমান জানান, বুধবার সন্ধ্যা সাড়ে ছ’টা নাগাদ এলাকার লোকেরা তার নাম ও ঠিকানা জানতে চাইলে সে নিখোঁজ হয়ে গেছে তা জানায়। তৎক্ষণাৎ সেই ব্যক্তিটিকে হরিশ্চন্দ্রপুর থানায় নিয়ে আসে বলে জানান। জানতে পারে তার বাড়ি মানিকচ ব্লকের ধরমপুর এলাকায়।যোগাযোগ করেন মালদা জেলা সভাধিপতি গৌর চন্দ্র মন্ডলের সঙ্গে।

সে আরো জানান,ব্যক্তিটি মানসিক ভারসাম্যহীন।
ঠিকানা বলতে পারলেও ঠিক ভাবে কথা বলতে পারে না। পরিবারের লোকেরা যাতে নিখোঁজ ব্যক্তিটিকে খুঁজে পায় সেই উদ্দেশ্যে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তার ঠিকানা সহ ছবি পোষ্ট করতেই পরিবারের‌ লোকেরা খুঁজে পায়।সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের জেরে পরিবারের লোক খুঁজে পেলেন নিখোঁজ থাকা মাজেদকে।হারানো ব্যক্তিকে ফিরে পেয়ে পরিবারে বইছে খুশির বন্যা।

পরিবার সূত্রে জানা গেছে,মাজেদ কাউকে না জানিয়ে বাড়ি থেকে বেরিয়ে নিখোঁজ হয়ে যায়। নিখোঁজ ডায়েরি করা হয় মালতিপুর চন্দ্র পাড়া পুলিশ ফাঁড়িতে। পরিবারের লোকজন অনেক খোঁজার পরও তার সন্ধান পায়নি। ফেসবুকে তার ছবি দেখে চন্দ্র পাড়া পুলিশ ফাঁড়ির এক ভিলেজ পুলিশ হরিশ্চন্দ্রপুর থানা ও জিয়াউর রহমানের সঙ্গে যোগাযোগ করে বলে জানা যায়। এখন সেই ব্যক্তিটি হরিশ্চন্দ্র পুর থানায় রয়েছে।

হরিশ্চন্দ্রপুর থানার আইসি সঞ্জয় কুমার দাস জানান,মানিকচক থানা ও তার পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ হয়েছে। আগামীকাল বাড়ির লোকেরা এসে নিয়ে যাবে বলে জানান।

Facebook Comments
error: Content is protected !!